এখনও হুমায়ূন আহমেদ

Date | 2015-02-05 | 12:02:29
দরজার একটা কপাট খোলা। অপর কপাট বন্ধ।

মাথায় কালো রঙের ক্যাপ। ডান হাতে একগাদা কাগজ।  নন্দিত কথাশিল্পী হুমায়ূন আহমেদ সেই খোলা দরজার ওপারে দাঁড়িয়ে তাকিয়ে আছেন বাইরের দিকে। খোলা প্রান্তরে দাঁড়ানো অগণিত মানুষের দিকে। এরা তার ভক্ত। তাদের কেউ হাঁটতে গিয়ে তাকে এভাবে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে চমকে উঠছেন। তার দাঁড়িয়ে পড়ে তাকিয়ে থাকছেন তার দিকে। এটি তার প্রতিকৃতি। হুমায়ূন আহমেদের সবচেয়ে বেশি বইয়ের প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অন্যপ্রকাশের প্যাভিলিয়ন। এভাবে প্যাভিলিয়নের উপরে হুমায়ূন আহমেদের পুরো প্রতিকৃতি টাঙিয়ে রেখেছে প্রতিষ্ঠানটি। সেখানে হুমায়ূন আহমেদকে দেখে থমকে দাঁড়াচ্ছেন মেলায় আগত তার ভক্ত ও পাঠক-দর্শকরা। একুশে গ্রন্থমেলা হচ্ছে, আর  হুমায়ূন আহমেদ নেইÑ এটা এক সময় ভাবা যেতো না। ছিল কল্পনাতীত ব্যাপার। কিন্তু সেটাই এখন বাস্তব। হুমায়ূন আহমেদ নেই। তবে গ্রন্থমেলা আছে। অবশ্য সশরীরে তিনি না থাকলেও এভাবে প্রতিকৃতি হয়ে দাঁড়িয়ে আছেন তিনি। এভাবেই পাঠকদের জানান দিচ্ছেন, তিনি আছেন। যেমন বেঁচে আছেন তার লেখায়। তেমনি সবার হৃদয়ে।
এবার তার লেখা অপ্রকাশিত কোন নতুন বই আসছে না। যেগুলো ছিল তা ইতিমধ্যে প্রকাশিত হয়ে গেছে। তবে তাকে নিয়ে লেখা, তার স্ক্রিপ্ট, কিছু প্রবন্ধ এবং রচনা সমগ্রসহ কয়েকটি বই বেরুবে এবার। এর মধ্যে অন্যপ্রকাশ থেকে আসবে ৩টি বই। এগুলো হচ্ছে ঘেটুপুত্র কালার স্ক্রিপ্ট, শিশুকিশোর রচনা সমগ্র ২য় খ- এবং হুমায়ূন রচনাবলি ৯ম খ-। অবসর প্রকাশনী থেকে এসেছে হুমায়ূন আহমেদের উপন্যাস সমগ্র ১৩তম খ-, তার লেখা প্রবন্ধ সঙ্কলন রবীন্দ্রনাথ, আমার রবীন্দ্রনাথ।
যে সব প্রতিষ্ঠান হুমায়ূন আহমেদের বই বের করেছে গ্রন্থমেলায় তাদের স্টল ও প্যাভিলিয়নে প্রায় সবগুলো বই-ই পাওয়া যাচ্ছে। অন্যপ্রকাশ, কাকলী, সময়, অনন্যা, মাওলা ব্রাদার্স, দিব্যপ্রকাশ ইত্যাদি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানে হুমায়ূনের বইয়ের জন্য ভিড় করছেন পাঠকরা। হিমু অথবা মিসির আলীর জন্য তারা বরাবরের মতোই ওইসব প্রকাশনীর স্টলে গিয়ে খোঁজ করছেন।
অমর একুশে গ্রন্থমেলা চতুর্থদিনে নতুন বই এসেছে ১০২টি। এর মধ্যে রয়েছে ১১টি গল্পের, ১৫টি উপন্যাস, ১০টি প্রবন্ধের এবং ১৯টি কবিতার বই। এদিন ২টি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন হয়।